মেধাবী শিহানের এইচএসসি পরীক্ষা দেয়া হলো না…!

0
332

রফিক মজিদ : শেরপুর জেলা শহরের নারায়নপুর মহল্লার প্রয়াত গণিতের শিক্ষক মজিদ উল্ল্যাহ (মজিদ বিএসসি) এর নাতী ও জেলার বরেন্দ্র কবি এমএইচ মুকুলের একমাত্র সন্তান চলতি বছরের এইচএসসি পরীক্ষার্থী মেধাবী ফুয়াদ আরেফিন শিহানের এইচএসসি পরীক্ষা দেয়া হলো না। সেইসাথে তার ভবিষ্যতে ডাক্তার হওয়ার স্বপ্নও ভেস্তে গেলো।
শিহান ১২ জুন শুক্রবার ভোরে তাদের শহরের নিজ বাড়িতে ব্রেইন হেমারেজ জনিত কারণে ইন্তেকাল করেন। ইন্নালিল্লাহে ওয়া উন্না ইলাইহি রাজিউন। শিহান বেশ কিছুদিন যাবত মাথার সমস্যায় ভুগছিলেন। সর্বশেষ গত প্রায় ২০ দিন আগে তাকে ঢাকায় নিউরো সাইন্স হাসপাতালে ভর্তি করলে সেখানের চিকিৎসকরা তার নানা পরক্ষিা-নিরিক্ষা ও চিকিৎসা শেষে ব্যর্থ হলে তাকে বাড়িতে ফেরত পাঠায়। পরে তাকে ১১ জুন রাতে শেরপুর ফেরত আনলে ১২ জুন ভোরে সে মারা যায়। পরে শুক্রবার বাদ জুম্মা শহরের নারায়পুরে তার প্রথম নামাজে জানাযা শেষে তাদের গ্রামের বাড়ী সদর উপজেলার ধলাকান্দা গ্রামে দ্বিতীয় নামাজে জানাজা শেষে তার দাদা মজিদ বিএসসি’র কবরের পাশে দাফন সম্পন্ন করা হয়।
শিহানের বাবা শেরপুরের বিশিষ্ট কবি এমএইচ মুকুল জানায়, ফুয়াদ আরেফিন শিহান ছোটবেলা থেকেই মেধাবী ছিলো। সে কিছুদিন গ্রামের বাড়িতে এবং পরে শহরের নবারুন পাবলিক স্কুলে পড়া অস্থায় পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণিতে ট্যানেলপুলে বৃত্তি পায়। এরপর শেরপুর সরকারী ভিক্টোরিয়া একাডেমী থেকে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পায়। পরে সে শেরপুর সরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়ে চলতি বছরের এইচএসসি পরীক্ষা দেয়ার জন্য সকল প্রস্তুতি শেষ করেন। কিন্তু সম্প্রতি দেশের করোনা ভাইরাসের কারণে পরীক্ষা স্থগিত হলে এবং লক ডাউনের কারণে মায়ের কর্মস্থল কুমিল্লায় আটকা পড়ে যায়। শিহানের মা সেখানে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষকের পদে চাকুরি করেন। কুমিল্লা থাকা অবস্থায় শিহানের মাথার সমস্যা শুরু হলে কিছুদিন সেখানে চিকিৎসা করলেও কোন উন্নতি না হলে লক ডাউনের মধ্যে তাকে গত ২০ দিন আগে ঢাকা নিউরো সাইন্সে ভর্তি করা হয়েছিল। শিহান ভবিষ্যতে ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন ছিলো। কিন্তু সে স্বপ্ন তার ভেস্তে গেলো। শিহানের মৃতুতে স্থানীয় এইচএসি পরীক্ষার্থী ও এলাকাবাসীর মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।