মায়ের চরণ সেবি – হারুনুর রশীদ

0
47
হারুনুর রশীদ
ছবি : সংগ্রিহিত

মায়ের চরণ সেবি
হারুনুর রশীদ


মায়ের চরণ সেবি আমি, মায়ের চরণ সেবি।
আমার মায়ের জায়গা-জমি, সম্পদ বেহিসেবি।
অর্থকরী আদায় করি যখন যত প্রয়োজন।
মা-জননী তাইতো আমার অধিকতর প্রিয়জন।
শত টাকা খরচ করে হাজার আদায় করি ভাই।
ভাবখানা তাই এমন দেখাই মায়ের পায়ে চির ঠাঁই।
ভক্তি-শ্রদ্ধা দেখাই যথা মা নন, তিনি দেবী!
মায়ের চরণ সেবি আমি, মায়ের চরণ সেবি।

স্বার্থহানি হলেই জানি ভেঙে ধানি লঙ্কা
মায়ের চোখে মাখাই সুখে, বাজাই রণডঙ্কা!
ঝগড়াঝাটি করি খাঁটি, কটু কথা যত
দুই গাল ভরে মায়ের তরে বর্ষি অবিরত!
জানের ভয়ে, মানের ভয়ে মায় রাজি হন, মে বি।
মায়ের চরণ সেবি আমি, মায়ের চরণ সেবি।

বড়ো করে তুলেছেন মায় কোলে-পিঠে নিয়ে।
সব প্রয়োজন মিটিয়েছেন আদর সোহাগ দিয়ে।
আদর পেয়ে বাঁদর হলাম, লাফাই ডালে ডালে!
অন্তর দিয়ে মায়ের খবর নিইনি কোনো কালে।
অভিনয়ে ভেংচি কাটি, দেখাই মিছে দরদ!
মায়ে ভাবেন, ভক্তি ভরা যোগ্য ছেলে-মরদ!
অতীতের ভুল বুঝে এবার অনুতপ্ত হেভি!
মায়ের চরণ সেবি আমি, মায়ের চরণ সেবি।

মায়ের হাতে মুলা দিয়ে ঝোলা ভরা টাকা
চুপিসারে সরাই তারে, ভাণ্ডার করি ফাঁকা!
বসত-ভিটে, জায়গা-জমি এখনও যা আছে
আদায় করতে সেবার ছলে থাকি মায়ের কাছে‌
মাকে বোঝাই — সবার চেয়ে আমিই ভালোবাসি।
বুঝতে দেইনা মূলে আমি কত্তো সর্বনাশী!
এমনভাবে বায়না ধরি যেমন নিষ্পাপ বেবি!
মায়ের চরণ সেবি আমি, মায়ের চরণ সেবি।।