জহুরুল হক মুন্সী বীর প্রতীক

0
457

খামারিয়া পাড়া, শ্রীবরদী। বীর মুক্তিযোদ্ধা ও বীর প্রতিক খেতাব প্রাপ্ত। জন্মঃ জন্ম ১৯৫০ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর জামালপুরের বকসীগঞ্জ উপজেলার চন্দ্রবাজ সরকার বাড়িতে। পরবর্তীতে বিবাহ সুত্র শ্রীবরদী উপজেলার খামাড়িয়াপাড়ায় বসতি স্থাপন করেন। তিনি ১৯৬৯ সালে নারায়নগঞ্জের বন্দর ইউনিয়ন হাইস্কুল থেকে মাধ্যমিক পাশ করেন। পিতাঃ আবদুল গফুর মিয়া, মাতাঃ গোলেছা খাতুন, স্ত্রীঃ মাহমুদা খাতুন। তাঁর তিন ছেলে, এক মেয়ে।

জহুরুল হক মুন্সী বীর প্রতীক

জহুরুল হক মুন্সী ১৯৭১ সালে ডক শ্রমিক ছিলেন। ষাটের দশক থেকে নারায়ণগঞ্জ ডক ইয়ার্ডে কাজ করতেন। মুক্তিযুদ্ধ শুরু হলে তিনি যুদ্ধে যোগ দেন।পাকিস্তানিদের মনোভাব জানতেন এবং তথ্য সংগ্রহ করতেন। আবার অস্ত্র হাতেও যুদ্ধ করেন। মাইন পোঁতায় তিনি ছিলেন খুবই পারদর্শী। ১৯৭১ সালের ডিসেম্বরে পাকিস্তানি সেনাদের কাছে আত্মসমর্পণের আহ্বানের চিঠি পৌঁছাতে গিয়ে তাদের হাতে নির্মম নির্যাতনের শিকার হন। যুদ্ধে বীরত্ব প্রদর্শনের স্বীকৃতিস্বরূপ তিনি দুটি বীর প্রতীক খেতাব পেয়েছেন। তাই তার নামের শেষে প্রথম বন্ধনীতে বীর প্রতিক ‍”বার” লেখা হয়।

তথ্যঃ শ্রীবরদীর মুখশ্রী।